মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১১:৩৩ অপরাহ্ন

ক্যাম্পাসে মেঘলাকে ভিডিও কলে থাকতে বাধ্য করতো প্রবাসী স্বামী

প্রকাশিতঃ বুধবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০২১, ৮:৫১ পূর্বাহ্ন

ক’রো’নার মধ্যে বিয়ে হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের ছা’ত্রী ইলমা চৌধুরী মেঘলার। এরপর দুইদিন ক্যাম্পাসে আসেন তিনি। একদিন মানোন্নয়ন পরীক্ষা দিতে। আরেকদিন আসেন ফরম ফিল-আপ করতে। দুইদিনই পুরো সময় জুড়ে স্বামী ইফতেখার শামীমের সঙ্গে ভি’ডিও কলে থাকতে হয়েছে তাকে। এমনটি জানিয়েছেন মেঘলার সহপাঠীরা৷

 

এদিকে মেঘলার মৃ’ত্যুর ঘটনায় মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে তার স্বামী ইফতেখার শামীমকে আ’ট’ক করেছে পু’লিশ। বনানী থা’নার অফিসার ইনচার্জ নুরে আজম মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেন। মেঘলার সহপাঠী আশিকুর রহমান জানান, ল’কডাউ’নের মধ্যে মেঘলার বিয়ে হয়। কিন্তু বিয়ের পর সে আর ক্যাম্পাসে আসেনি।

 

কয়েকদিন আগে একটা ইম্প্রুভ পরীক্ষা দেওয়ার জন্য এসেছিল। সেদিন তার সঙ্গে বাসার কাজের মে’য়েকে পাঠানো হয়। তখন আমাদের কিছু বলতে চাইছিল। কিন্তু পুরো সময় তাকে ভি’ডিও কলে থাকতে হয়েছিল। ইলমা কোথায় যাচ্ছে, কি করছে- তা তার স্বামী পর্যবেক্ষ’ণ করছিলো।

 

তার সহপাঠী নুসরাত তিথি জানান, তার স্বামীর সঙ্গে একটু ঝা’মেলা চলছিল৷ ক’রো’নার মধ্যে বিয়ে হওয়ার পর মেঘলা ক্যাম্পাসে আসেনি। একদিন ফরম ফিলআপ করতে এসেছিলো। সেদিন ভি’ডিও কলে থাকতে হয়েছে তাকে। মেঘলাকে তার মা-বাবার সঙ্গে যোগাযোগ করতে দিতো না। মেঘলার মা সিমথি চৌধুরী জানান, আমা’র মে’য়ে আ’ত্মহ’ত্যা করতে পারে না।

 

তাকে হ’ত্যা করা হয়েছে। আমি এর বিচার চাই। বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গো’লাম রাব্বানী বলেন, এটা হ’ত্যা না আত্মহ’ত্যা বিষয়টি এখনো নিশ্চিত নই। আইনশৃঙ্খলা র’ক্ষাকারী বাহিনী বিষয়টি খতিয়ে দেখছে। ময়নাত’দন্ত শেষে বিস্তারিত জানা যাবে। আজ বিকেল ৪টায় গুরুতর আ’হত অবস্থায় ইলমা চৌধুরী মেঘলাকে তার স্বামী রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতা’লে নিয়ে আসে। পরে সেখানকার ডাক্তার মেঘলাকে মৃ’ত ঘোষণা করেন।


More News Of This Category
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
error:
error: