রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ১১:২৪ অপরাহ্ন

বাবা কোনো ভুল করলে ক্ষমা করে দিস, রাতে একটা অভিযান আছে: ছেলেকে বলছিল হাবিবুর

প্রকাশিতঃ বৃহস্পতিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২২, ২:০৮ অপরাহ্ন

বাবা কোনো ভু’ল করলে ক্ষ’মা করে দিস, রাতে একটা অভি’যান আছে, সেখানে যাচ্ছি। তোর মাকেও দোয়া করতে বলিস- এটাই ছিল পরিবারের সাথে সেনাসদস্য হাবিবুর রহমানের শেষ কথা। বৃহস্পতিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে এভাবেই কা’ন্না জড়ি’ত ক’ণ্ঠে বাবার সাথে শেষ কথা বলার অ’ভিব্য’ক্তি জানাচ্ছিলেন নিহত সেনাসদস্য হাবিবুর রহমানের বড় ছেলে হাসিবুর রহমান।

হা‌সিবুর রহমান জানান, গতকাল শেষবা‌রের মতো কথা হ‌য়েছিল তার বাবার সা‌থে, তখন ছে‌লের কা‌ছে দোয়া চে‌য়েছিলেন হা‌বিবুর। তি‌নি বল‌ছি‌লেন, বাবা দোয়া কর রাতে একটা অ‌ভি’যা‌ন আ‌ছে। হাসিবুর রহমান আরও জানান, বাবার চাকরির মেয়াদ ছিল আর এক বছরের কিছু বেশি সময়। চাকরি শেষ করে স্থায়ীভাবে পরিবার নিয়ে বসবাসের পরিকল্পনা ছিল তার। সেনাবাহিনীতে কাজ করায় বাসার নাম দিয়েছিলেন সেনা নিকে’তন। কিন্তু সেই স্বপ্ন আর পূরণ হলো না। স্বপ্ন স্বপ্নই রয়ে গেল, তার অনেক সাধের সেনা নিকেতন এখন শোকে স্তব্ধ।

উল্লেখ্য, বুধবার (২ ফেব্রুয়ারি) রাতে বান্দরবনের রুমায় জেএসএস স’ন্ত্রা’সীদের সাথে গো’লাগু’লিতে নিহ’ত হন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সিনিয়র ওয়ারেন্ট অফিসার মো. হাবিবুর রহমান। তার গ্রামের বাড়ি পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার মহিপুর এলাকায় হলেও তিনি বসবাস করতেন পটুয়াখালী পৌর শহরের ১নং ওয়ার্ডের টাউন বহালগাছিয়ার গাজী বাড়িতে।

সেখানেই সেনা নিকেতন নামে একটি ভবন নির্মাণ করে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বসবাস করতেন হাবিবুর। হাবিবুরের পরিবারে ৯০ বছর বয়সী বৃদ্ধ বাবা, মা, স্ত্রী এবং হাসিবুর ও হাসান নামের দুই সন্তান রয়েছেন। হা‌বিবু‌রের ছোট ছেলে হাসানও বাংলা‌দেশ সেনাবা‌হিনী‌তে কর্মরত। হাবিবুরের মৃ’ত্যুর খবর শুনে তার অ’সুস্থ বাবা বা’করু’দ্ধ হয়ে পড়েন। কান্নায় ভে’ঙ্গে পড়া বৃদ্ধ মা সংজ্ঞাহী’ন হয়ে পড়ছিলেন বারবার। বৃহস্পতিবার সকা‌লে হাবিবুরের মৃ’ত্যুর খবর শুনে তার বাড়ি‌তে ভিড় জমাতে থাকেন নিকটাত্মীয়রা। কা’ন্নায় ভে‌’ঙ্গে প‌ড়েন প‌রিবা‌রের সদস্যসহ এলাকাবাসী।

হাবিবুরের বড় ভাই খলিলুর রহমান জানান, আমার ভাই ছিল বটগাছের মতো। এলাকার সবাই তাকে ভালবাসতো। গরীব-দুঃখী মানুষের বিপ’দে এগিয়ে আসতো, সাহায্য-সহযোগিতা করতো। এ কারণে এলাকার সবাই তাকে গরীবের বন্ধু হিসেবে চিনতো। খলিলুর আরও জানান, তাকে তার ওসিয়ত অনুযায়ী বাসার পাশে তাদের নিজস্ব জমিতেই দা’ফন করা হবে। হাবিবুরের সেই সেনা নিকেতনের পাশেই যখন তার কবর খোঁড়া হচ্ছিলো, তখন গোটা বাড়িতে তখন চলছে শোকের মাতম।


More News Of This Category
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
error:
error: