মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১০:৫৩ পূর্বাহ্ন

আর ভাঙা ঘরে থাকতে হবে না: ছোট ভাইকে বলেছিলেন ইউক্রেনে নিহত হাদিসুর

প্রকাশিতঃ বৃহস্পতিবার, ৩ মার্চ, ২০২২, ৬:৫২ পূর্বাহ্ন

ইউক্রেনের অলভিয়া বন্দরে আট’কে থাকা বাংলাদেশি জাহাজ ‘বাংলার সমৃদ্ধি’ তে বুধবার স্থানীয় সময় ভোর ৫টা ১০ মিনিটে রকেট হা’মলা হয়। এ হাম’লায় নি’হত হন মো. হাদিসুর রহমান আরিফ (২৯)। হাদিসুর ওই জাহাজের থার্ড ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। হাদিসুরের গ্রামের বাড়ি বরগুনার বেতাগী উপজেলার হোসনাবাদ ইউনিয়নে।

 

তিনি কদমতলা গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আব্দুর রাজ্জাক হাওলাদারের ছেলে। পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষ’ম ছেলেকে হারিয়ে পাগলপ্রায় মা-বাবা। তার গ্রামের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। নি’হত হাদিসুরের ছোট ভাই তারেক হোসাইন বলেন, মৃ’ত্যুর আগে ভাইয়া আমাদের সঙ্গে কথা বলেছেন। ফোনে ভাইয়া বলেন, আমাদের আর ভা’ঙা ঘরে থাকা লাগবে না।

 

বাড়িতে এসেই যেভাবে হোক ঘরের নির্মাণকাজ ধরব। তিনি আরও বলেন, ভাইয়ের মৃ’ত্যুর খবর শুনে বাবা বা’করু’দ্ধ হয়ে বসে আছেন। মা বারবার মূর্ছা যাচ্ছেন। ভাইয়ার অনেক স্বপ্ন ছিল এলাকার মধ্যে সবচেয়ে সুন্দর একটা বাড়ি করার। কিন্তু ভাগ্য আর সেই সুযোগ দিল না। একনজর হলেও আমি আমার ভাইয়ার লা’শটা দেখতে চাই। স্বজনরা জানান, সাত বছর ধরে ‘এমভি বাংলার সমৃদ্ধি’ জাহাজটিতে চাকরি করেন হাদিসুর।

 

জাহাজ থেকে হাদিসুরের এক বন্ধু ফোন দিয়ে জানায় ইউক্রেনের বন্দরের জলসীমায় ২৪ ফেব্রুয়াারি থেকে ২৯ জন নাবিক নিয়ে আ’টকে আছে তাদের জাহাজ। হাদিসুরও ফোন দিয়ে আ’টকে থাকার খবর জানান। এরপর থেকে তার সাথে আর কোনো যোগাযোগ হয়নি।

 

তারা আরও জানান, স্বজনদের সঙ্গে কথা বলার জন্য নেটওয়ার্কের সিগন্যাল পেতে জাহাজের কেবিন থেকে বেরিয়ে ব্রিজে আসেন হাদিসুর। এর খানিক বাদেই জাহাজে রকেট হাম’লা করে রাশিয়ান সেনারা। এতে ঘটনাস্থলেই মা’রা যান হাদিসুর।


More News Of This Category
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
error:
error: