শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২, ০৬:১৬ অপরাহ্ন

বিনাবেতনে ৩ মাস কাজ করবেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ও মন্ত্রীরা

প্রকাশিতঃ সোমবার, ৩১ মে, ২০২১, ৩:৫৭ অপরাহ্ন

মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী তান শ্রী মুহিদ্দিন ইয়াসিন এবং কেবিনেট মন্ত্রীরা জুন থেকে তিন মাসের জন্য বিনা বেতনে কাজ করবেন। এ বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী তান শ্রী মুহিদ্দিন ইয়াসিন নিজেই জানিয়েছেন। স্থানীয় সময় সোমবার (৩১ মে) রাতে দেশটির সরকারের আর্থিক সহায়তা প্রতিষ্ঠান পেমারকাসা প্লাসে সহায়তা ঘোষণা করতে গিয়ে তিনি টেলিভিশনে এক বিশেষ ভাষণে একথা বলেন।

 

তিনি বলেন, তাদের এই তিন মাসের বেতন ল’কডা’উনের কারণে কর্মহীন মানুষের মানবিক সহায়তায় এবং দেশটির ফ্রন্টলাইনার এবং মালয়েশিয়ানদের প্রতি একাত্মতা প্রদর্শনের জন্য জাতীয় দুর্যোগ ত্রাণ ট্রাস্ট তহবিলে এই অর্থ পাঠানো হবে।তিনি আরও বলেন, ম’হামা’রির এই মহাবিপদের সময় ডাক্তার-নার্সরাই প্রকৃত সন্মুখসারির যো’দ্ধা।

 

প্রা’ণঘা’তী ক’রো’না ভা’ইরা’সের এ ভ’য়া’বহ ও নি’র্ম’ম দুর্যো’গে প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল ভৌত অবকাঠামো, জনবল ও সরঞ্জাম নিয়ে আমাদের যে সব চিকিৎসক, নার্স, প্যারামেডিক্সসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মীরা কো’ভি’ড-১’৯ এর বি’রু’দ্ধে নিজেদের জীবনকে বা’জি রেখে আমাদের বাঁচানোর চেষ্টা করে যাচ্ছেন, তাদের প্রতি আমাদের সশ্রদ্ধ কৃতজ্ঞতা ও নির্মল ভালোবাসা প্রকাশ করছি। তিনি সবাইকে বাড়িতে থাকার এবং সর্বদা স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিওর (এসওপি) মেনে চলার আহ্বান জানান এবং সবাইকে মনে করিয়ে দেন যে ম’হামা’রির বি’রু’দ্ধে লড়াই করার জন্য নেওয়া সমস্ত প্রচেষ্টা অন্যথায় ব্যর্থ হতে পারে।

 

এছাড়াও তিনি কো’ভি’ড-১’৯ রোগীদের দ্রু’ত আ’রোগ্য কামনা করেন এবং যারা এই ভাই’রা’সে আ’ক্রা’ন্ত হয়েছেন তাদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান। প্রসঙ্গত, মালয়েশিয়ায় ক’রো’নাভা’ইরা’সের চতুর্থ ঢেউ শুরু হওয়ায় সং’ক্র’মণ রোধে ১ জুন থেকে ১৪ জুন পর্যন্ত চৌদ্দ দিনের ফুল ল’কডা’উন ঘোষণা করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে দেশটির সরকার।

 

এদিকে, দেশটিতে সোমবার দুপুর পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় ক’রো’নায় আ’ক্রা’ন্ত হয়েছেন ৬ হাজার ৮২৪ জন এবং মৃ’ত্যু হয়েছে ৬৭ জনের। সব মিলিয়ে আ’ক্রা’ন্তের সংখ্যা ৫ লাখ ৭২ হাজার ৩৫৭ জন। এখন পর্যন্ত দেশটিতে ক’রো’না’য় মা’রা গেছেন ২ হাজার ৭৯৬ জন এবং সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরেছেন ৪ লাখ ৯০ হাজার ৩৮ জন।


More News Of This Category
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
error:
error: