শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:১২ অপরাহ্ন

সুপ্রিম কোর্ট ক্যান্টিনে গরুর গোশত রান্নার নির্দেশনা চেয়ে আবেদন

প্রকাশিতঃ বুধবার, ২ জুন, ২০২১, ৯:৫৯ পূর্বাহ্ন

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির ক্যান্টিনে গরুর গোশত রান্না করায় একটি আইনজীবী সংগঠনের প্র’তিবা’দের পর এবার গরুর গোশত রান্নায় নির্দেশনা চেয়ে পাল্টা আবেদন জানিয়েছেন এক আইনজীবী। বুধবার সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক বরাবর আবেদন করেন আইনজীবী মো. মাহমুদুল হাসান।

 

আবেদনে তিনি বলেন, গরুর গোশত বাংলাদেশের অত্যন্ত জনপ্রিয় এবং বৈধ একটি খাবার। বাংলাদেশের কোনো আইনে এই গরুর গোশতকে নি’ষিদ্ধ করা হয়নি। স্বাস্থ্যগত দিক দিয়ে এটি অত্যন্ত পুষ্টিকর। যুক্তরাজ্যের অ্যাগ্রিকালচার অ্যান্ড হর্টিকালচার ডেভেলপমেন্ট বোর্ডের তথ্যানুযায়ী গরুর গোশতে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন, ভিটামিন বি-৬, বি-১২, মিনারেল, জিংক রয়েছে এবং এটি প্রজনন ক্ষ’মতা বৃদ্ধিসহ শরীরের রো’গ প্রতিরোধ ক্ষম’তাও বৃদ্ধি করে। গরুর গোশতের পু’ষ্টিগুণ বিবেচনা করে এবং দেশের জনগণের প্রোটিন নিশ্চিতে সরকারের প্রাণিসম্পদ অধিদফতর ৪.২২ কোটি টাকা ব্যয়ে আধুনিক পদ্ধতিতে গরু হৃষ্টপুষ্ট করণ প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে।

 

আবেদনে আরও বলা হয়, গরুর গোশত অত্যন্ত সুস্বাদু ও পুষ্টিকর হওয়ায় ইউরোপ-আমেরিকাসহ বিশ্বব্যাপী তা অত্যন্ত জনপ্রিয় খাবার। এছাড়া আমাদের পাশের দেশ ভারতের সব রাজ্যে গরু জবাই ও গো’শত খাওয়া নি’ষি’দ্ধ নয়। আবেদনে আইনজীবী আরও বলেন, ‘প্রকৃতপক্ষে, কোনও খাবার খাওয়া বা না-খাওয়া মানুষের ব্যক্তিগত ইচ্ছা ও রুচির বিষয়। স্বাস্থ্যগত কারণে বা বিশ্বাসজনিত কারণে কেউ গরুর গোশত অ’পছন্দ বা নাও খেতে পারেন। তাই বলে সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের অধীনে ক্যান্টিনগুলোতে গরুর গো’শত রান্না বা বিক্রি হবে না, এ বিষয়গুলো অত্যন্ত অ’মানবিক।

 

আবেদনে বলা হয়, সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবীরা শারী’রিক ও মান’সিকভাবে অনেক পরিশ্রম করেন। তাই আইনজীবীদের প্রয়োজনীয় পুষ্টি নিশ্চিতে বার অ্যাসোসিয়েশনের অধীনে সব ক্যান্টিনে গরুর গোশত রান্না ও বিক্রি হওয়া আবশ্যক। পাশাপাশি স্বাস্থ্যগত কারণে বা বিশ্বাস জনিত কারণে যারা গরুর গোশত খেতে চান না, তাদের জন্য বিকল্প ব্যবস্থা রাখা উচিত।

 

প্রসঙ্গত, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির ক্যান্টিনে গরুর গোশত রান্নার ঘটনায় আইনজীবী ঐক্য পরিষদের সুপ্রিম কোর্ট শাখার নেতৃবৃন্দরা প্র’তিবা’দ জানান। একইসঙ্গে ক্যান্টিনে গরুর গোশত রান্না বন্ধ করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষে’প নিতে সমিতির বর্তমান কমিটির প্রতি আহবান জানান তারা। আইনজীবী ঐক্য পরিষদের সুপ্রিম কোর্ট শাখার সভাপতি বিভাস চন্দ্র বিশ্বাসসহ চার আইনজীবী ওই আবেদন করেন।


More News Of This Category
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
error:
error: