মঙ্গলবার, ১১ জানুয়ারী ২০২২, ০১:৪৬ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
শিরোনামঃ
প্রবাসী আমিরুলকে মেরে ৯ দিন পর লাশ দেশে পাঠায় চার মামাতো ভাই যাত্রীচাপ সামলাতে দুবাই রুটে বিমানের অতিরিক্ত ফ্লাইট কাতার সরকারের নেওয়া নতুন সিদ্ধান্তে হতাশ প্রবাসী বাংলাদেশিরা শুধু লাল তালিকায় না, বাংলাদেশকে ‘ব্যতিক্রমী লাল’ তালিকায় যুক্ত করলো কাতার ঢাকা থেকে কাতারে এসেই পেটের অসুখে আক্রান্ত প্রবাসীরা, এয়ারপোর্টে নতুন নির্দেশনা ৫ গন্তব্যের কোনো সিট খালি নেই, ভাড়া কমানোর আগেই বিমানের টিকিট বিক্রি শেষ! ইলিয়াস আমার টাকা-পয়সা, গয়না নিয়ে চলে গেছে: সুবাহ ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে সংঘর্ষ, জয়-লেখক আহত মধ্যপ্রাচ্যের ৫ রুটে ১৬ তারিখ থেকে কম ভাড়ায় চলবে বিমান জাহানারা বিশ্বসেরা সুন্দরী ক্রিকেটারদের তালিকায় সবার উপরে

অতিরিক্ত আম খেলে হতে পারে ভয়াবহ বিপদ

প্রকাশিতঃ বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন, ২০২১, ৪:৩৪ অপরাহ্ন

মৌসুম ফল আম খেতে ছোট-বড় সবাই পছন্দ করে। আমে আছে বিভিন্ন পুষ্টিগুণ, যা শরীরের জন্য উপকারী। তবে জানেন কি, অতিরিক্ত আম খাওয়ার ফলে ডেকে আনছেন বি’পদ, বিশে’ষজ্ঞরা তাই বলছেন। বিশেষজ্ঞদের মতে, অতিরিক্ত আম খাওয়া ফলে নানা ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। এর মধ্যে ডায়াবেটিসসহ ওজন বেড়ে যাওয়া বদহ’জম, পেটে ব্যথা ইত্যাদি সমস্যার সৃষ্টি হয়। আমের কিছু পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া আছে, জেনে নিন সেগুলো-

 

যেহেতু আমে প্রাকৃতিক চিনির পরিমাণ বেশি, তাই এটি ডায়াবেটিস আ’ক্রা’ন্তদের জন্য ক্ষ’তিকারক হতে পারে। আপনি যদি ডায়াবেটিসে আ’ক্রা’ন্ত হন, তবে আপনাকে অবশ্যই আম খাওয়ার আগে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। স্বাদের কারণে অনেকেই একের পর এক আম খাওয়া শুরু করেন। তবে জানেন কি, অতিরিক্ত আম খাওয়া ডায়রিয়ার কারণ হতে পারে। আম প্রচুর পরিমাণে আঁশসমৃ’দ্ধ, যা অতিরিক্ত খেলে ডায়রিয়ার সমস্যা সৃ’ষ্টি করতে পারে।

 

আমের মধ্যে ইউরিশিয়াল নামক একটি রাসায়নিক থাকে। এই রাসায়নিক অনেকের শরীরেই অ্যা’লার্জি’র সম’স্যা সৃ’ষ্টি করে। এর ফলে চ’র্মরো’গ দেখা দেয়। এই রাসায়নিকের ফলে ত্বকের সমস্যা যেমন- ত্বক ফুলে ওঠা, ফো’স্কা এবং চুলকা’নি হতে পারে। আম অনেকের জন্য অ্যালার্জির কারণ হতে পারে। এর ফলে চোখ ও নাক দিয়ে পানি পড়া, শ্বাসক’ষ্ট’, হাঁচি, পেটে ব্যথা ইত্যাদি সমস্যা হতে পারে। আম খাওয়ার পরে এসব লক্ষণ দেখা দিলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

 

অতিরিক্ত আম খেলে ব’দহজম হতে পারে। বিশেষ করে কাঁচা আম বদহজমের সমস্যা বাড়িয়ে তোলে। ফলের রাজা আমে ক্যালোরির পরিমাণও বেশি। যা দ্রুত ওজন বাড়িয়ে দিতে পারে। একটি মাঝারি আকারের আমের মধ্যে থাকে ১৫০ ক্যালোরি। সুতরাং আপনি যদি ওজন কমাতে চান, তাহলে আম খাওয়া থেকে দূরে থাকুন। আমে থাকা ছত্রাক কারও কারও শরীরে প্রবেশ করলে জ্ব’রের কারণ হতে পারে। আমবাত বা ছত্রাকজনিত একটি ত্বকের রোগ, যা ত্বকের ফুসকুড়ি, চুলকানি এবং ত্বকের লালচেভাব সৃষ্টি করে। এই সমস্যাটি নির্দিষ্ট খাবার, স্ট্রেস বা ওষুধের কারণে হয়ে থাকে।

 

একাধিক গবেষণা অনুসারে, আম শরীরের উত্তাপ অনেক বাড়িয়ে তোলে। তাই গরমে অত্যধিক আম খাওয়া এড়িয়ে চলুন। আয়ুর্বেদের মতে, আম কখনই দুধের সঙ্গে খাওয়া উচিত নয়। এটি ব’দহজম, ডায়রিয়াসহ পে’টের স্বাস্থ্যের ক্ষতি করতে পারে। বাতজনিত সমস্যায় যারা ভুগছেন, সেসব রোগীরা খুব অল্প পরিমাণে আম খেতে পারবেন। অতিরিক্ত খেলে সমস্যা আরও বেড়ে যেতে পারে। আম খাওয়ার পর অনেকেই ‘ম্যাংগো মাউথ’ সমস্যার সম্মুখীন হন। এর ফলে মুখের মধ্যে চুলকানি, ফোলাভাব এবং মুখের চারপাশে ফোসকা, ঠোঁট এবং জিহ্বায় জ্বালা-পোড়াভাব হতে পারে।

Facebook Notice for EU! You need to login to view and post FB Comments!


More News Of This Category
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
error:
error: