শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২, ০৮:৫৩ পূর্বাহ্ন

এএসপি পরিচয়ে কলেজ ছাত্রীকে বিয়ে, পরে জানা গেলো জামাই বাদাম বিক্রেতা

প্রকাশিতঃ শুক্রবার, ২৫ জুন, ২০২১, ৫:২৮ অপরাহ্ন

মোবাইলফোনে নিজেকে রংপুর রেঞ্জে কর্মরত সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) পরিচয় দিয়ে বগুড়ার এক কলেজ ছাত্রীকে প্রেমের সম্প’র্ক জ’ড়ান পঞ্চগড়ের বাসিন্দা আবদুল আলীম। এরপর গোপনে বি’য়েও করেন। কিন্তু বিয়ের এক সপ্তাহের মাথায় এসে জানা গেলো আবদুল আলীম এএসপি নয়, পেশায় সে একজন বাদাম বিক্রেতা।

 

বগুড়া জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফয়সাল মাহমুদ জানিয়েছেন, গত ১৮ জুন আলীম বগুড়ায় ওই কলেজ ছাত্রীর বাসায় এসে তাকে বিয়ের প্র’স্তাব দেয়। পুলিশে নতুন চাকরি তাই গো’পনে বিয়ে করতে হবে বলে মেয়ের পরিবারকে জানালে তার কথায় বিশ্বাস করে ওই রাতেই ঘ’রো’য়াভাবে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে ছাত্রীর পরিবার। এরপর শ্বশুরবাড়িতে থাকা শুরু করে সে।

 

একপর্যায়ে মেয়েটির পরিবারের সন্দেহ হলে তারা আলীমকে চাকরির ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে। জেরার মুখে সে জানায়, সে পুলিশ কর্মকর্তা নয়, বাদাম বিক্রেতা। পরে থানায় খবর দিলে পুলিশ আলীমকে আ’টক করে। বগুড়া সদর থানার পরিদর্শক (তদ’ন্ত) আবুল কালাম আজাদ জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আলীম জানিয়েছে এর আগে সে এভাবে প্রতারণা করে আরও ৪টি বিয়ে করেছে। তার প্রথম প’ক্ষের স্ত্রীর দুটি সন্তানও রয়েছে।

 

শুক্রবার (২৫ জুন) ওই কলেজ ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে নারী ও শি’শু ‘নি”র্যা’ত’ন দমন আইনে এবং প্র’তা’র’ণার অ’ভি’যোগে থানায় মাম’লা করেছেন। ওই মাম’লায় গ্রে’ফ’তার দেখিয়ে আলীমকে আ’দালতের মাধ্যমে বগুড়া জেলা কা’রাগারে পাঠানো হয়েছে।


More News Of This Category
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
error:
error: