বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১০:৫৮ অপরাহ্ন

পুলিশ কর্মকর্তা বদরুল না থাকলে আজ মৃত্যু হতে পারতো ১২ যাত্রীর

প্রকাশিতঃ রবিবার, ৪ জুলাই, ২০২১, ৪:৪১ অপরাহ্ন

নদী পার হতে গিয়ে ট্রলারসহ ডুবে যাচ্ছিলেন ১২ যাত্রী। তবে নদী তীরে দা’য়িত্বরত এক পুলিশ সদস্যের সাহ’সিকতায় মৃ’ত্যুর হাত থেকে র’ক্ষা পেয়েছেন তারা। রোববার (৪ জুলাই) দুপুরে বরিশালের উপকণ্ঠ বেলতলা খেয়াঘাট সংলগ্ন কীর্তনখোলা নদীতে এ দু’র্ঘ’টনা ঘটে।

 

স্থানীয়রা জানান, মেট্রোপলিটন কাউনিয়া থানা পুলিশের এএসআই বদরুল ইসলাম না হলে উত্তাল কীর্তনখোলায় যাত্রীদের সলিলসমা’ধি হতো। দুপুর সাড়ে ১২টার থেকে পৌনে একটার দিকে কাঠের একটি ট্রলারে করে ১২/১৩ জন যাত্রী চরমোনাই খেয়াঘাট থেকে বরিশাল নগরীর পলাশপুরের বেলতলা খেয়াঘাটের উদ্দেশে যাত্রা করেন।

 

নদীর মাঝখানে এসে ঢেউয়ের মুখে পড়ে ট্র’লারটি ডু’বে যেতে থাকে। এএসআই বদরুল ইসলাম বলেন, আমি তখন ৩ কনেস্টবলসহ বেলতলা খেয়াঘাট এলাকায় দায়িত্বরত ছিলাম। ট্রলারটি পার হয়ে নদীর এপারে আসতেও দেখছিলাম। হঠাৎ ট্রলারটি ডুবে যাচ্ছে দেখে তাৎক্ষণিক ঘাটে থাকা দুটি ট্র’লার নিয়ে মাঝ নদীতে ছু’টে যাই।

 

সেখান থেকে ৪ শিশু, দুইজন নারী ও ৬ জন পুরুষকে উ’দ্ধার করি। যাত্রীরা সকলে সুস্থ থাকলেও প্রচণ্ড আত’ঙ্কি’ত হয়ে পড়েন।বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (উত্তর) মো. মনজুর রহমান বলেন, এএসআই বদরুল ইসলামকে অভিনন্দন জানিয়েছি তার মানবিক এবং সাহ’সি কাজের জন্য। তাকে পুরস্কৃতও করা হবে। মূলত পুলিশ সদস্যরা তার মত মানবিক এবং কল্যাণকর কাজ করতেই নিয়োজিত হন।


More News Of This Category
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
error:
error: