বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:৩৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
শিরোনামঃ
দুবাই বিমানবন্দরে কী ঘটে তা জানার অপেক্ষায় ঢাকা আচার বলে বিমানবন্দরে ব্যাগে ঢুকিয়ে দিলো প্যাকেট, সৌদি গিয়ে জেলে প্রবাসী প্রেম নিয়ে গুঞ্জন, নায়িকা বললেন ‘সৃজিত আমার বাবার মতো’ রাস্তায় ঘুরে চুড়ি-ফিতা বিক্রি করছেন নায়িকা মৌসুমী হাতিরঝিলে নতুন সংসার শুরু করলেন অপু বিশ্বাস, চাইলেন দোয়া মালয়েশিয়া প্রবাসীদের পোস্ট অফিস থেকে যেভাবে পাসপোর্ট নিতে হবে মালয়েশিয়ায় রিক্যালিব্রেশনে আবেদনকারীরা কোম্পানির অফিসেই করতে পারবে ফিঙ্গারপ্রিন্ট মায়ের সামনে আগুনে পুড়ে মরলো শেকলবন্দি কলেজছাত্র! বিমানবন্দরে ১ সপ্তাহের মাঝে নমুনা পরীক্ষা শুরু, মূল্যও কমবে কুয়েত মোবারক আল-কাবির থেকে ৮০ জন গ্রেফতার!

অতিরিক্ত আম খেলে হতে পারে ভয়াবহ বিপদ

প্রকাশিতঃ বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন, ২০২১, ৪:৩৪ অপরাহ্ন

মৌসুম ফল আম খেতে ছোট-বড় সবাই পছন্দ করে। আমে আছে বিভিন্ন পুষ্টিগুণ, যা শরীরের জন্য উপকারী। তবে জানেন কি, অতিরিক্ত আম খাওয়ার ফলে ডেকে আনছেন বি’পদ, বিশে’ষজ্ঞরা তাই বলছেন। বিশেষজ্ঞদের মতে, অতিরিক্ত আম খাওয়া ফলে নানা ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। এর মধ্যে ডায়াবেটিসসহ ওজন বেড়ে যাওয়া বদহ’জম, পেটে ব্যথা ইত্যাদি সমস্যার সৃষ্টি হয়। আমের কিছু পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া আছে, জেনে নিন সেগুলো-

 

যেহেতু আমে প্রাকৃতিক চিনির পরিমাণ বেশি, তাই এটি ডায়াবেটিস আ’ক্রা’ন্তদের জন্য ক্ষ’তিকারক হতে পারে। আপনি যদি ডায়াবেটিসে আ’ক্রা’ন্ত হন, তবে আপনাকে অবশ্যই আম খাওয়ার আগে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। স্বাদের কারণে অনেকেই একের পর এক আম খাওয়া শুরু করেন। তবে জানেন কি, অতিরিক্ত আম খাওয়া ডায়রিয়ার কারণ হতে পারে। আম প্রচুর পরিমাণে আঁশসমৃ’দ্ধ, যা অতিরিক্ত খেলে ডায়রিয়ার সমস্যা সৃ’ষ্টি করতে পারে।

 

আমের মধ্যে ইউরিশিয়াল নামক একটি রাসায়নিক থাকে। এই রাসায়নিক অনেকের শরীরেই অ্যা’লার্জি’র সম’স্যা সৃ’ষ্টি করে। এর ফলে চ’র্মরো’গ দেখা দেয়। এই রাসায়নিকের ফলে ত্বকের সমস্যা যেমন- ত্বক ফুলে ওঠা, ফো’স্কা এবং চুলকা’নি হতে পারে। আম অনেকের জন্য অ্যালার্জির কারণ হতে পারে। এর ফলে চোখ ও নাক দিয়ে পানি পড়া, শ্বাসক’ষ্ট’, হাঁচি, পেটে ব্যথা ইত্যাদি সমস্যা হতে পারে। আম খাওয়ার পরে এসব লক্ষণ দেখা দিলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

 

অতিরিক্ত আম খেলে ব’দহজম হতে পারে। বিশেষ করে কাঁচা আম বদহজমের সমস্যা বাড়িয়ে তোলে। ফলের রাজা আমে ক্যালোরির পরিমাণও বেশি। যা দ্রুত ওজন বাড়িয়ে দিতে পারে। একটি মাঝারি আকারের আমের মধ্যে থাকে ১৫০ ক্যালোরি। সুতরাং আপনি যদি ওজন কমাতে চান, তাহলে আম খাওয়া থেকে দূরে থাকুন। আমে থাকা ছত্রাক কারও কারও শরীরে প্রবেশ করলে জ্ব’রের কারণ হতে পারে। আমবাত বা ছত্রাকজনিত একটি ত্বকের রোগ, যা ত্বকের ফুসকুড়ি, চুলকানি এবং ত্বকের লালচেভাব সৃষ্টি করে। এই সমস্যাটি নির্দিষ্ট খাবার, স্ট্রেস বা ওষুধের কারণে হয়ে থাকে।

 

একাধিক গবেষণা অনুসারে, আম শরীরের উত্তাপ অনেক বাড়িয়ে তোলে। তাই গরমে অত্যধিক আম খাওয়া এড়িয়ে চলুন। আয়ুর্বেদের মতে, আম কখনই দুধের সঙ্গে খাওয়া উচিত নয়। এটি ব’দহজম, ডায়রিয়াসহ পে’টের স্বাস্থ্যের ক্ষতি করতে পারে। বাতজনিত সমস্যায় যারা ভুগছেন, সেসব রোগীরা খুব অল্প পরিমাণে আম খেতে পারবেন। অতিরিক্ত খেলে সমস্যা আরও বেড়ে যেতে পারে। আম খাওয়ার পর অনেকেই ‘ম্যাংগো মাউথ’ সমস্যার সম্মুখীন হন। এর ফলে মুখের মধ্যে চুলকানি, ফোলাভাব এবং মুখের চারপাশে ফোসকা, ঠোঁট এবং জিহ্বায় জ্বালা-পোড়াভাব হতে পারে।


More News Of This Category
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
error:
error: