বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:০১ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
শিরোনামঃ
দুবাই বিমানবন্দরে কী ঘটে তা জানার অপেক্ষায় ঢাকা আচার বলে বিমানবন্দরে ব্যাগে ঢুকিয়ে দিলো প্যাকেট, সৌদি গিয়ে জেলে প্রবাসী প্রেম নিয়ে গুঞ্জন, নায়িকা বললেন ‘সৃজিত আমার বাবার মতো’ রাস্তায় ঘুরে চুড়ি-ফিতা বিক্রি করছেন নায়িকা মৌসুমী হাতিরঝিলে নতুন সংসার শুরু করলেন অপু বিশ্বাস, চাইলেন দোয়া মালয়েশিয়া প্রবাসীদের পোস্ট অফিস থেকে যেভাবে পাসপোর্ট নিতে হবে মালয়েশিয়ায় রিক্যালিব্রেশনে আবেদনকারীরা কোম্পানির অফিসেই করতে পারবে ফিঙ্গারপ্রিন্ট মায়ের সামনে আগুনে পুড়ে মরলো শেকলবন্দি কলেজছাত্র! বিমানবন্দরে ১ সপ্তাহের মাঝে নমুনা পরীক্ষা শুরু, মূল্যও কমবে কুয়েত মোবারক আল-কাবির থেকে ৮০ জন গ্রেফতার!

৭৩ বছর বয়সে ডেলিভারি বয় হলেন অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মকর্তা!

প্রকাশিতঃ শুক্রবার, ১০ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ২:৪০ অপরাহ্ন

কঠোর পরিশ্রমের এক বিরল দৃষ্টান্ত রাখলেন ৭৩ বছর বয়সী এক অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মক’র্তা। টাকার অভাবে সংসারের খরচ মেটাতে খাদ্য সরবরাহকারী হিসেবে কাজ শুরু করেছেন তিনি। ফায়াজ আখতার ফাইজি নামের এই ৭৩ বছর বয়সী ডেলিভা’রি ‘বয়’ পা’কিস্তানের রাজধানী ইস’লামাবাদের বাসিন্দা।

 

২৭ বছর ধরে তিনি পা’কিস্তানের অর্থ মন্ত্রণালয়ে একজন কর্মক’র্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। কিন্তু এখন ২৫,০০০ টাকার পেনশন দিয়ে পরিবারের খরচ মেটাতে ব্যর্থ হওয়ায় তিনি ডেলিভা’রি ‘বয়’ হিসেবে কাজ শুরু করেছেন। পা’কিস্তানের এআরওয়াই নিউজের অনুষ্ঠান ‘বাখবর সাভেরা’র সঙ্গে আলাপকালে ফায়াজ আখতার বলেন, তিনি ২৭ বছর ধরে অর্থ মন্ত্রণালয়ে কাজ করেছেন এবং এখন তিনি অবসরপ্রাপ্ত।

 

আর অবসর গ্রহণের পর তিনি যে অর্থ পেয়েছিলেন তা দিয়ে তিনি করো’না মহামা’রীর প্রথম তরঙ্গের সময়ে তার ছে’লের জন্য একটি মোবাইল দোকান খুলেছিলেন। কিন্তু করো’না মহামা’রীর কারণে ব্যবসায় সফল হতে পারেননি তারা। তিনি বলেন, ‘ব্যবসায় লস করার কারণে সমস্ত সঞ্চিত মূলধন ব্যয় হয়ে গেছে এবং আমি ঋণগ্রস্ত হয়ে পড়েছি। পেনশনের ২৫ হাজার টাকা বাসা ভাড়ার পেছনেই খরচ হয়ে যাওয়ার কারণে আমি কিছু একটা করতে বাধ্য হয়েছি’।

 

‘তাই, আমি ফুড ডেলিভা’রি ‘বয়’ হিসেবে কাজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি কারণ কঠোর পরিশ্রমের মধ্যে খা’রাপ কিছু নেই’। এক প্রশ্নের জবাবে ৭৩ বছর বয়সী এই ফুড ডেলিভা’রি ‘বয়’ বলেন, মানুষ তাকে এবং তার কাজের প্রশংসা করে। তিনি বলেন, ‘আমি এখন দিন আনি দিন খাই, কিন্তু আমি এখনও কারও কাছে হাত পাতিনি’। আখতার পা’কিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইম’রান খান এবং সমাজসেবীদের কাছে তাকে একটি ছোট্ট বাড়ি কিনে দিতে অনুরোধ করেছেন, যাতে তিনি তার ঋণ শোধ করতে পারেন।


More News Of This Category
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
error:
error: